মেশিন লার্ণিং কেন শিখবো? বাংলাদেশে এটার জব-স্কোপ কতটুকু?

(কোনো ভূমিকা নাই)। তিনটি কারনে মেশিন লার্ণিং শিখবেন- টাকার জন্য (যেটা আমাদের মূল উদ্দেশ্য) যুগের সাথে তাল মেলানোর জন্য মানুষের জন্য (মানুষ মানুষের জন্য, তাই) এখন অনেকের মনে হতে পারে- টাকার জন্য বুঝলাম, যুগের সাথে তাল মেলানোর জন্য আর মানুষের

রিসার্চ এবং মেশিন লার্ণিংঃ শুরু করার সঠিক ও সহজতম উপায়

মানুষ কিভাবে সময়ের সাথে সাথে বড় হয়? কিভাবে তার চিন্তাশক্তি দিনে দিনে বৃদ্ধি পায়, ম্যাচিউর হয়ে ওঠে, এবং এভাবে একসময় বুদ্ধিবৃত্তিক প্রাণী হিসেবে পরিচিতি পায়? এই প্রশ্নগুলোর উত্তর খুজতে গিয়েই তৈরী হয়েছে আরেক প্রশ্ন। মানুষকে কি আদৌ মেশিনের দ্বারা রিপ্লেস

অপরিচিত জনের সাথে আলাপচারিতার ৭ টি কৌশলঃ যেভাবে নিজেকে বিশেষভাবে উপস্থাপন করবেন

আলাপচারিতা একটি শিল্প, যেমনটি আমরা শিল্প হিসেবে দেখি চিত্রকলা, আলোকচিত্র কিংবা চারুশিল্পকে। আপনি যখন নতুন কারোর সাথে পরিচিত হচ্ছেন, আলাপ শুরু করছেন, তাতে একটি বন্ধন তৈরী হচ্ছে। আর এই বন্ধন কতটুকু শক্ত বা মজবুত হবে সেটা অনেকটাই নির্ভর করে তার

ফেব্রুয়ারী, ২০১৯ সাল- কে বেশি শক্তিশালীঃ যন্ত্র নাকি মানুষ?

কি মনে হয়? এই লেখা শেষে কে জিতবে শক্তির তারতম্যে? আপনি নাকি এই মুহূর্তে যে ডিভাইসটির মাধ্যমে লেখাটি পড়ছেন, সেটি? উত্তরটি আসলে যুগ পাল্টানোর সাথেসাথে জটিল থেকে জটিলতর হচ্ছে। কেননা আমরাই তৈরি করছি স্মার্ট ডিভাইসগুলো, আমরাই এটিকে আপডেট করছি এবং মানুষের

ফাইনাল ইয়ার ডিফেন্সঃ থিসিস করবো নাকি প্রোজেক্ট?

ভার্সিটির থার্ড ইয়ার শেষ হতে না হতেই স্টুডেন্টদের আরেক দফা হতাশাগ্রস্থ করে দেয় ফাইনাল ইয়ার প্রজেক্ট, থিসিস না ইনটার্ন… এই নিয়ে নিজের মধ্যেই টানপারাপারি এবং এই সিদ্ধান্তহীনতা! অনেকে জানেনই না, “কেন সে সিএসই পড়ছে?” আর ভবিষ্যতে কী করবে, কিভাবে করবে